রবিবার ০১ অগাস্ট ২০২১ || শ্রাবণ ১৭ ১৪২৮ || ২২ জিলহজ্জ ১৪৪২

Logo
Logo

শিবপুরে উপজেলা পরিষদের ফটক থেকে রাতের আঁধারে সাবেক এমপির নামফলক অপসারন

নিজস্ব প্রতিবেদক

আপডেট: 5:56 PM, সোমবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২০

৩৭

শিবপুরে উপজেলা পরিষদের ফটক থেকে রাতের আঁধারে সাবেক এমপির নামফলক অপসারন

নরসিংদীর শিবপুর উপজেলা পরিষদের প্রধান গেইট থেকে রাতের আঁধারে কে কারা সাবেক এমপি সিরাজুল ইসলাম মোল্লার নাম অপসারণ করেছে। শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) দিবাগত রাতে ওই গেইট থেকে বাঁধাই করা “সিরাজুল ইসলাম মোল্লা এমপি” লেখা নামের অংশটুকু অপসারণ করা হয়। এতে তার রাজনৈতিক কর্মী সমর্থকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

 

জানা গেছে, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নরসিংদী-৩ (শিবপুর) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন সিরাজুল ইসলাম মোল্লা। তিনি শিবপুরে সরকারী উন্নয়নের পাশাপাশি ব্যক্তিগত অর্থায়নে অনেক কাজের মধ্যে উপজেলা পরিষদের গেইটটিও নির্মাণ করেন। যা নির্মাণ করতে ব্যয় হয় সাড়ে ১২ লাখ টাকা। ব্যক্তিগত অর্থায়নে করায় এতে অর্থায়নে: সিরাজুল ইসলাম মোল্লা, এমপি লেখা হয়েছিল। যা নিয়ে কারো কোনো আপত্তি ছিল না। কিন্তু দীর্ঘদিন পর হঠাৎ রবিবার (২৭ ডিসেম্বর) সকালে দেখা যায় সিরাজুল ইসলাম মোল্লা এমপি লেখাটুকু তুলে ফেলা হয়েছে। এ নিয়ে সাবেক এমপির কর্মী সমর্থক ও সাধারণ মানুষের মাঝে ক্ষোভ ও নানা আলোচনা সমালোচনা সৃষ্টি হয়েছে।

 

এ ব্যাপারে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সহ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এ কে নাছিম আহমেদ হিরণ বলেন, এটি খুবই দু:খজনক। শিবপুরের জনপ্রিয় সাবেক এমপি সিরাজুল ইসলাম মোল্লা তার ব্যক্তিগত টাকা দিয়ে এই গেইট নির্মাণ করেছেন। ফলে এমন ঘটনায় যারা ব্যক্তিগত টাকা দিয়ে রাষ্ট্রের কাজ করতে চায়, তারা নিরুৎসাহিত হবে।

 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ কাবিরুল ইসলাম খান বলেন, উপজেলা পরিষদের গেইট থেকে সাবেক এমপির নাম তুলে ফেলার বিষয়টি আমি অবগত হয়েছি। এ বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান মহোদয়ের সাথে আলোচনা হয়েছে। আমরা আইনগত ব্যবস্থা নিব।

 

উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হারুনুর রশীদ খান বলেন, সাবেক এমপির নাম কে বা কারা গেইট থেকে তুলেছে তা আমার জানা নেই। এই নাম অপসারণে উপজেলা পরিষদে কোন সিদ্বান্ত হয়নি।

 

এ ব্যাপারে সাবেক এমপি সিরাজুল ইসলাম মোল্লা বলেন, আমি এমপি থাকাকালীন সময়ে আমার ব্যক্তিগত অর্থায়নে উপজেলা পরিষদের এই গেইটি নির্মাণ করেছি। ফলে গেইটিতে অর্থায়নে আমার নাম লেখা ছিল। রবিবার রাতে শুনতে পাই কে বা কারা আমার নাম তুলে ফেলেছে।

ফেসবুকে অমাদের ফলো করুন